Call-কলানি (IT স্পেশাল)

Conversation, Friends, Humor, Protest, Satire, Technology, আই টি ভাইটি, আনন্দ আকাশ, বাংলা

আর জাস্ট নেওয়া যাচ্ছে না। প্রতিদিন সক্কাল সক্কাল অ্যালার্ম ঘড়িটা সাইরেনের মতো বেজে ওঠে ঠিক ৬ টায় । ভগবানের নাম করে যে একটু শান্তি মনে নেচার্স কলে সারা দেব, সে উপায় নেই , ৬:৩০ টা থেকে ক্লায়েন্ট আর অনসোরের সাথে কল শুরু। এ এক আজব কল , শুধু ভাববাচ্যে কথা বার্তা হয় , ” আমাদের এতে উন্নতি করতে হবে , আমাদের ওতে উন্নতি করতে হবে , আমাদের আরো ভালো প্রসেস আনতে হবে ” – কে করবে ? সেটা “ উইল টেক ইট অফলাইন ” । এই বাক্য শুনলেন মানেই বুঝে যাবেন , এই মুদ্দা আর সলভ হবার না ।

অফশোর, মানে এই দুঃখী দেশের কিছু IT – শ্রমিক , যারা নিজের ক্ষুধা , নিদ্রা ভুলে, হয় বাথরুম থেকে বা তন্দ্রাচ্ছন্ন হযে লেপের তলা থেকে কল নিচ্ছি, মাঝে মাঝে কি নিয়ে কথা বার্তা হচ্ছে বুঝতেই পারি না । মনে হয় ইঞ্জিরির মত শুনতে কিন্তু কিছুটা হিব্রুমার্কা কিছু শব্দ। কেলো হয় তখন , যখন হটাৎ আপনার নাম ডেকে জিজ্ঞেস করা হয়-” হোয়াট ইস ইউর টেক অন দিস ?” – আর টেক !! তখন টাকে উঠে গেছে – চিন্তাভাবনা। এদিকে দু তিন বার রোল কল হয়ে গেছে , কিছু একটা না বললেই না। কিন্তু বুঝতে দিলে হবে না যে বুঝিনি কিসসু । এক মহান অস্ত্র আছে –

সরি , ডিসকানেক্ট হয়ে গেছিলো , ক্যান ইউ রিপিট ?” বা ” মিউট করে কথা বলছিলাম সরি “।

যাক , তো “এমনি করেই যাই যদি দিন যাক না ” বলে তো বসে থাকা যায় না । দু – তিন বার আমরা আমাদের বস কে বললাম ।

“ইয়ে ! সকালের কল টা একটু ক্যানসেল করলে হয় না ?”

বস এমন করে উঠলো যেন আমরা ওর মেয়েকে বিয়ে করার প্রস্তাব নিয়ে গেছি । মোগাম্বো, মগনলাল মেঘরাজ আর গব্বরের সংমিশ্রনে এক এমন হুঙ্কার মারলেন –
“তোমরা জানো ওই কলে ক্লায়েন্টের সি এফ ও থাকে ! মহিলা লেডি হিটলার একদম । “

মুখার্জী দা একটু মিনমিন করে প্রতিবাদ করার চেষ্টা করলো –

” না মানে আমি একটু পুজো আচ্চা করি তো , তো ওই ওইবেক্স – এ জয়েন করে ঠিক পুজো করতে পারি না ।”

আমরা একটা সমর্থন দিলাম – “ঠিক ,ঠিক “

” দ্যাখো মুখার্জী ! বাজার খারাপ , কস্ট কাটিং চলছে । কতদিন কার চাকরি থাকবে ঠিক নেই , এই সব ফালতু যুক্তি আমাকে দিতে এসো না । এ কল ক্লায়েন্ট না বললে বন্ধ হবে না !”

কথা দিয়ে কোল্ড ব্লাডেড মার্ডার করে বস চলে গেল। আমরা নিজের সিটে হতাশ হয়ে বসে পড়লাম। মুখার্জী দার ফর্সা মুখ টা লাল আপেলের মতো হয়ে গেছে। বিশাল বপু নিয়ে নিজের সিটে অনেকক্ষণ থুম মেরে থাকলো। তারপর যা হয় , আবার বাগ ফিক্স, কল , আর সিভি টা আপডেট করে একবার মনস্টার , নৌকরি চেক করে নেওয়া । নো হোপ , বাজার টা সত্যি ই খারাপ ।

এমনি ই চলছিল , অবশেষে ” আচ্ছে দিন ” আমাদের এলো ।

সেদিনও কল চলছে , আজ প্রধান বক্তা মুখার্জী দা । আমরা কেউ শুনছি , কেউ ওয়েবেক্স-এ স্ক্রিন দেখছি । কিছু এক্সেল-এ ম্যানেজমেন্ট স্ট্যাটিসটিক্স দেখাচ্ছে ক্লায়েন্ট । হঠাৎ ক্লায়েন্ট মুখার্জীদাকে নিজের স্টেটাস রিপোর্ট দেখাতে বললো স্ক্রিন শেয়ার করে। স্ক্রিন শেয়ার তো হলো, কিন্তু এ কি !! স্টেটাস রিপোর্টের জায়গায় মুখার্জিদার নধরকান্তি ,গামছা পরিহিত বপু ভেসে উঠলো কেন ? ও হরি , মুখার্জি দা ভুল করে ভিডিও শেয়ারিং অপসন টা ক্লিক করে ফেলেছে । ক্লায়েন্ট অপ্রস্তুত , আমরা অপ্রস্তুত। এই অযাচিত স্ট্যাটাস রিপোর্টের জন্য কেও ই তৈরী ছিল না । আমরা চ্যাটে লিখে চলছি , ” মুখার্জী দা, ভিডিও শেয়ারিং বন্ধ করো ।

মুখার্জী দা বুঝতে পারছে না কি ভাবে ভিডিও বন্ধ করতে হয়। লোকজনের চ্যাটের চোটে তখন মুখার্জী দা বেশ চটে উঠেছে ততক্ষনে , রেগে হটাৎ হিন্দি তে বলে উঠলো কলে -“হ্যাম ইস্কো বন্ধ নাহি কর পাতা হ্যায় ।।” তারপর এক মুহূর্ত নীরবতা পালন এবং কল থেকে মুখার্জী দার প্রস্থান এবং কল শেষ ।

সেদিন আর অফিসে মুখার্জী দা আসে নি , শরীর নাকি খারাপ । বস এসে বললো , ” বুঝলে , ক্লায়েন্ট বলছে ইট ইস টু আর্লি ফর অফশোর, সেজন্য অনসোরের সাথে ক্লায়েন্ট কল করে নেবে । কল টা আমি ক্যান্সেল করে দিচ্ছি কাল থেকে ।

বি : দ্র :- আজ আমরা ওপিয়াম এ মুখার্জী দা কে স্পেশাল ট্রিট দিচ্ছি , প্রথমে না না করে এখনো পর্যন্ত ৪ পেগ উড়িয়ে দিয়েছে মুখার্জী দা । কেন ট্রিট দিচ্ছি ?? উহঃ সব কিছু কি আর এক্সপ্লেইন করা যায় মশাই । নিজেরা বুঝে নিন ।।। “থ্রী চিয়ার্স ফর মুখার্জী দা , হিপ হিপ হুররে ” ।।

 

IT নিয়ে আরও মজার মজার গল্প পড়তে হলে নিচের লিঙ্কগুলোতে ক্লিক করুন ~

১। ওরে আমার ভাইটি, দিন ফুরোলো IT-র

২। “পাতা” ঝরার মরশুমে – IT Special

৩। অফিসই মোদের বাড়ি, মোরা IT কর্মচারি

৪। টাকা চাই, ইতি WannaCry (একটি Ransomware এর কাহিনি)

 

লেখক ~ আনন্দ

প্রচ্ছদচিত্র উৎস ~ timemattersconcierge.com

প্রচ্ছদচিত্র অলঙ্করণ ~ Anari Minds

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.